সবজি বাজারে স্বস্তি - Jamuna.News
ব্রেকিং নিউজ

সবজি বাজারে স্বস্তি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, ঢাকা : দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে চড়া ছিল সবজির বাজার। সম্প্রতি শীতের সবজির সরবরাহ বাড়ায় কমতে শুরু করেছে দাম। তবে আলু পেঁয়াজের দামে লাগাম পড়েনি এখনও। ৪৫ টাকায় আলু ও প্রতিকেজি পেঁয়াজের জন্য গুনতে হচ্ছে ৫৫ থেকে ৬০ টাকা। অন্যদিকে আগের মতোই চড়া চাল, মাছ ও মসলার বাজার।

বিক্রেতাদের দাবি, গত দুই সপ্তাহে বেশ কয়েকটি সবজির দাম কেজিতে ১০ থেকে ৩০ টাকা পর্যন্ত কমেছে। অনেক সবজির দাম কমেছে প্রায় অর্ধেক। সামনে আরও কমবে বলে জানালেন দোকানিরা। এতে ক্রেতাদের মধ্যেও ফিরেছে স্বস্তি।

শুক্রবার রাজধানীর মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেট, টাউনহল বাজার, শিয়া মসজিদ বাজার, খিলগাঁও বাজারসহ বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে এমন তথ্য জানা গেছে।

সবজির দর
বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বরবটি ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। কমেনি টমেটোর দাম। বিক্রি হচ্ছে ১০০ থেকে ১২০ টাকায়। আগের দামেই বিক্রি হচ্ছে পটল, মূলা, করলা, ঢেড়স, শিম। এরমধ্যে পটল ৬০ টাকা, মূলা ৪০ টাকা, করলা ৮০ টাকা, ঢেড়স ৬০ টাকা, শিম ৬০ টাকা, কচুরলতি ৫০-৬০ টাকা, কচুরমুখি ৫০-৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

৪০ টাকা কেজি দরে মিলছে পেঁপে।বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা কেজি। ঝিঙা ৫০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ৫০ টাকা, কাচা মরিচ ১২০ টাকা কেজি, ধুন্দল ৬০ টাকা, শশা ৫০ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা, কলিসহ নতুন পেয়াজ ৭০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

লাউ প্রতি পিছ ৫০-৬০ টাকা, বাধাকপি প্রতি পিছ ৪০ টাকা, ফুলকপি ৪০ টাকা পিছ, কাঁচকলার হালি ৪০ টাকা, চাল কুমড়া ৪০ টাকা পিছ, গাজরের কেজি ১০০ টাকা, ক্যাপসিকাম ২০০ থেকে ২৬০ টাকা কেজি। আর আকারভেদে পিছ বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৩৫ টাকায়।

এদিকে গতমাসে প্রতি কেজি আলুর দাম ৩৫ টাকা নির্ধারণ করে দিয়েছে সরকার। কিন্তু এ সপ্তাহেও ৪৫ থেকে ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে আলু। এছাড়া দেশি পেঁয়াজ প্রতি কেজি ৬০ টাকা, ভারতীয় পেঁয়াজ ৫০ টাকা, পাকিস্তানি ৪৫ টাকা, দেশি আদা ৮০ টাকা, চায়না আদা প্রতি কেজি ২৭০ টাকা এবং রসুন দেশি ১১০ টাকা ও ভারতীয় ৯০ টাকা বিক্রি হতে দেখা গেছে।

মাছের বাজার
বাজার ঘুরে দেখা যায়, এক কেজি আকারের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৮০০ টাকা কেজি দরে। এক কেজির চাইতে কিছুটা ছোট আকারের ইলিশ ৬০০ টাকা।

এছাড়া প্রতি কেজি রুই মাছ ৩৫০ টাকা, কাতল ৪০০ টাকা, চাষ করা পাঙ্গাস মাছ ১৬০ টাকা কেজি, নদীর পাঙ্গাস ৩৫০ টাকা কেজি, চাষের কৈ ২০০ টাকা, নদীর কৈ ৪০০ টাকা, আইড় মাছ ৭০০ টাকা কেজি, চিংড়ি মাছ ৭০০ টাকা, কাচকি ৩৫০ টাকা, শিং ৪০০ টাকা, রূপচাঁদা মাছ ৭০০ ও রিটা মাছ ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা প্রতি কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

মাংসের বাজার
কিছুটা কমেছে গরুর মাংসের দাম। ৫৫০ থেকে ৫৭০ টাকায় কেজিতে বিক্রি হওয়া গরুর মাংস এ সপ্তাহে বিক্রি হচ্ছে ৫০০ থেকে ৫২০ টাকা কেজি দরে। অপরিবর্তিত রয়েছে ব্রয়লায় ও সোনালী মুরগির দাম। ব্রয়লার মুরগি ১২০ থেকে ১৩০ টাকা ও প্রতি কেজি সোনালী মুরগি ২২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

চালের বাজার
কেজি প্রতি দুই-এক টাকা ওঠানামা করলেও আগের অবস্থানেই আছে চালের বাজার। প্রকার ভেদে মিনিকেট বিক্রি হচ্ছে ৫৪ থেকে ৫৬ টাকার মধ্যে, আটাস চাল ৪৮ টাকা, গুটি চাল ৪৫ থেকে ৪৬ টাকা, নাজিরশাইল প্রকারভেদে ৫২ থেকে ৬০ টাকা ও আতপ চাল প্রতি কেজি ৪৪ থেকে ৪৫ টাকা।

শাকের বাজার
পুইশাক আটি ৩০ টাকা, লালশাক ১৫ টাকা, পাটশাক ১০ টাকা, লাউশাক ৩০ টাকা, কলমি শাক ১০ টাকা আটি, মূলা শাক ১০ টাকা, পালং ২০ টাকা, ডাটা শাক ১০ টাকা ও সরিষা শাক বিক্রি হচ্ছে ১৫ টাকা আঁটি। এছাড়া ধনিয়া পাতা ৬০ কেজি টাকা, লেবু ২০ টাকা হালিতে বিক্রি হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email